রোগ নিরাময়ে মধুর উপকারিতা

  • 0

রোগ নিরাময়ে মধুর উপকারিতা

রোগ নিরাময়ে মধুর উপকারিতা

মানুষের জন্য মধু মহান আল্লাহ তায়ালার এক মহামূল্যবান নেয়ামত। পবিত্র কুরআনের সুরা নাহালের ৬৮ -৬৯ আয়াতে মধুর উপকারিতা সম্পর্কে বলা হয়েছে, মধুতে মানুষের জন্য রয়েছে রোগের প্রতিকার। মহানবী সা: বহুবিধ জটিল ও কঠিন রোগের প্রতিষেধক হিসেবে মধুর কথা বিশেষভাবে উল্লেখ করেছেন। মধুত আছে মানবদেহের প্রয়োজনীয় ভিটামিন, ক্যালসিয়াম, আয়রন,  জিঙ্ক,  ফসফরাস ও পুষ্টি। তাই মধু এক দিকে যেমন খাদ্য ঠিক তেমনিভাবে রোগের আরোগ্য দানকারী।

বিবিধ রোগে মধুর ঔষধি গুণ নিম্নরুপ

১. হাঁচি সর্দি কাশি জ্বরে: দুই তোলা মধু ও ছয় মাসা আদার রস মিশিয়ে জিহ্বা দ্বারা চুষতে হবে এবং চা, কফি বা গরম দুধের সাথে ১/২ চা চামচ মধু মিশিয়ে খেতে হবে সকাল, ‍দুপুর ও রাতে পাঁচ সাত দিন।

২. পেটের পীড়ায় ঃ এ ক্ষেত্রে সকালে খালি পেটে ১/২ চা চামচ মধু বৃষ্টির পানিসহ খেতে হবে তিন পাঁচ দিন।

৩. ত্বকের ক্ষতেঃ ক্ষতস্থানে মধুর পাতলা প্রলেপ দিতে হবে পাঁচ থেকে সাত দিন।

৪. গলার খুসখুসে ভাব কমায়: লবণ পানির সাথে এক কাপ চা চামচ মধু মিশিয়ে গড়গড়া করতে হবে দুই থেকে তিন দিন।

৬. ক্লান্তিতে: আধা গ্লাস সামান্য গরম পানির সাথে বড় এক চা চামচ মধু মিশিয়ে পান করতে হবে।

৭. একজিমা হাঁপানি শ্বাসকষ্টে : দুই চা চামচ আপেলের সিরকার সাতে দুই চা চামচ মধু মিশিয়ে সকাল সন্ধ্যা খেতে হবে এক মাস।

৮. কোষ্টকাঠিন্য দূর করে ঃ উষ্ণ গরম পানির মধ্যে মাঝারি সাইজের এক চামচ গমের চূর্ণ ও ১/২ চা চামচ মধু মিশিয়ে পানি ঠান্ডা হলে সকালে খালি পেটে ও রাতে খাওয়ার ১ ঘন্টা পর তিন থেকে পাঁচ দিন খেতে হবে।

৯. প্রসাবনালীর সমস্যায় : মধু প্রসাবনালীতে জমা ময়লা পরিষ্কার করে। তাই এক থেকে দুই চা চামচ মধুর সাথে এক গ্লাস পানি মিশিয়ে সকালে খেতে হবে ১০ থেকে ১৫ দিন।

হাকিম খোন্দকার আতিয়ার রহমান


Leave a Reply